• ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ১-০ গোলে হারল বাংলাদেশ

usbnews
প্রকাশিত মার্চ ২৬, ২০২৪
ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ১-০ গোলে হারল বাংলাদেশ
নিউজটি শেয়ার করুনঃ

ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ১-০ গোলে গেরে গেল বাংলাদেশ। ফিফা বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচের একিবারে শেষ দিকে, অতিরিক্ত সময়ে গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়া বাংলাদেশ আর গোল পরিশোধ করার সুযোগ পায়নি।

খেলার শুরু থেকে ভালোই মোকাবেলা করে বাংলাদেশ দল। নিজেরা কোনো গোল করতে না পারলেও প্রতিপক্ষে গোলের সুুযোগও দেয়নি জামাল ভূঁইয়ার নেতৃত্বাধীন দলটি।

কিন্তু একিবারে অন্তিম মুহূর্তে হার মেনে নিতে হয় লাল-সবুজের দলকে। যুদ্ধবিদ্ধস্ত ফিলিস্তিন ১-০ গোলে জয়ে মাঠ ত্যাগ করে।

মঙ্গলবার বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় ফিরতি লেগের ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ-ফিলিস্তিন।

বিশ্বকাপ এবং এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে প্রথম লেগে হেসে-খেলে বাংলাদেশকে হারিয়ে দেয় ফিলিস্তিন। পায় ৫-০ ব্যবধানের বড় জয়। তবে দ্বিতীয় লেগে জামাল ভূঁইয়াদের হারাতে ঘাম ছুটেছে ফিলিস্তিনিদের। ইনজুরি টাইমে পাওয়া ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয়ের পর বাংলাদেশকে প্রশংসায় ভাসালেন ফিলিস্তিন কোচ মাকরাম দাবৌব। বললেন, ‘খুবই কঠিন ম্যাচ ছিল।’ ২০২৬ বিশ্বকাপ এবং ২০২৭ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে টানা দ্বিতীয় জয় পেলো ফিলিস্তিন। চার ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘আই’ গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো তারা। বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই লেগে ৬ পয়েন্টের প্রত্যাশা পূরণ হওয়ায় খুশি ফিলিস্তিন কোচ মাকরাম। দ্বিতীয় লেগে লড়াকু ফুটবল বাংলাদেশকে প্রশংসায় ভাসান তিনি। ম্যাচ শেষে মাকরাম দাবৌব বলেন, ‘বাংলাদেশ সম্পর্কে বলব, তারা ভালো দল। পরের ম্যাচে তাদের জন্য শুভকামনা থাকলো।’ কোয়ালিফায়ারে আগামী ৬ই জুন অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ফুটবল জাতীয় দল।
নিজের দলের প্রশংসায় ফিলিস্তিন কোচ মাকরাম বলেন, ‘এটা খুবই কঠিন ম্যাচ ছিল, বিশেষ করে ভিন্ন আবহাওয়ার জন্য।

কিংস অ্যারেনার গ্যালারিতে ফিলিস্তিনের পতাকা নিয়ে আসা ফুটবলপ্রেমীদেরকে ধন্যবাদ জানাতেও ভোলেননি তিনি। ম্যাচ শেষে মাকরাম বলেন, ‘ম্যাচের আগে এবং পরে ফিলিস্তিনকে সমর্থন করার জন্য বাংলাদেশের মানুষদেরকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।’

ফিলিস্তিনের সঙ্গে সবশেষ দেখায় কুয়েতের মাঠে বাংলাদেশ হেরে যায় ৫-০ গোলে। সেই ফিলিস্তিনকেই এবার ঘরের মাঠে প্রায় রুখেই দিয়েছিল বাংলাদেশ। ৯৪ মিনিট পর্যন্ত আটকে রেখেছিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিকে। তবে শেষ রক্ষা হলো না। ইনজুরি টাইমে গোল হজম করে ১-০ ব্যবধানে হারলো স্বাগতিকরা।

ফিফা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ৮৬ ধাপ এগিয়ে থাকা ফিলিস্তিনকে পাঁচবারের দেখায়  হারাতে পারেনি লাল-সবুজের দল। ২০০৬ সালে এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপে ১-১ গোলে ড্র করেছিল, এরপর চারবার হেরেছে তাদের বিপক্ষে।