• ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৭ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত দশজন আহত

usbnews
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২৪
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়  শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত দশজন আহত
নিউজটি শেয়ার করুনঃ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত দশজন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে সিএফসি ও সিক্সটি নাইন গ্রুপের কর্মীরা কথা কাটাকাটির জের ধরে সংঘর্ষে জড়ায়। পরে তা শাহজালাল ও শাহ আমানত হলে ছড়িয়ে পড়ে।
এ নিয়ে গত ২১ ঘণ্টায় তিন দফায় সংঘর্ষে জড়ালেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।
ছাত্রলীগ কর্মীরা জানায়, বৃহস্পতিবার রাত পৌনে আটটার দিকে সিএফসি গ্রুপের এক কর্মীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন এলাকায় মারধর করে সিক্সটি নাইনের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহজালাল ও শাহ আমানত হলের সামনে রামদা ও ইটপাটকেল নিয়ে অবস্থান নেন দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা। এক পর্যায়ে ইট পাটকেল নিক্ষেপের মাধ্যমে সংঘর্ষে জড়ান তারা। এ ঘটনায় দুই গ্রুপের অন্তত দশজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এর মধ্যে সাতজন বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে চিকিৎসা নিয়েছেন।

সিক্সটি নাইন গ্রুপের নেতা ও বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘সিএফসি গ্রুপের এক জুনিয়র কর্মী আমাদের সিনিয়র কর্মীর সাথে বেয়াদবি করার পর এই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়েছে। ওরা ইচ্ছা করেই এই সংঘর্ষ বাঁধিয়েছে। কারণ আজকেই আমাদের গ্রুপের আরেকটা গ্রুপের সাথে সংঘর্ষ হয়েছে। অন্য গ্রুপের সাথে তো আজকে সংঘর্ষ হওয়ার কথা না।

পাল্টা অভিযোগ করে সিএফসি গ্রুপের নেতা ও বিলুপ্ত কমিটির সহসভাপতি মির্জা খবির সাদাফ বলেন,’আমাদের এক কর্মীকে মারধর করার পর এই সংঘর্ষের সূত্রপাত করে তারাই। ইচ্ছাকৃতভাবে তারা নেতৃত্বহীনতার কারণে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত করেছে।’

এদিকে দফায় দফায় চেষ্টার পর রাত সাড়ে দশটায় পুলিশ ও প্রক্টরিয়াল বডি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড.নূরুল আজিম সিকদার বলেন, ‘সংঘর্ষের ঘটনায় ইতিমধ্যে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’